Popular Posts
E-books
Notice
সু-দিন ফিরবে ইনশাআল্লাহ,,, পাশে থাকুন, পাশে পাবেন ইনশাআল্লাহ।                কবিকথা ডট কম যেহেতু আমাদের সবার তাই আসুন আমরা সবাই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কিছু অনুদান দিয়ে কবিকথা ডট কম কে সামনে চলতে সহযোগিতা করি... বিস্তারিত জানতে উপরের Donation বা অনুদান অপশনে লিংকে ক্লিক করুন...                 প্রিন্ট মূল্যে বই প্রকাশ করতে এখনি যোগাযোগ করুন কবিকথা প্রকাশনীর ফেসবুক পেজের https://web.facebook.com/kkprokashoni এই ঠিকানায়।                 কবিকথা ডট কম আমাদের সবার, তাই আসুন আমরা এখানে নিয়মিত সাহিত্য সাধনা করি এবং অন্যকেউ আমন্ত্রণ করি।                 কবিকথা ডট কম এ আপনাকে স্বাগতম।                
Recent Post
ঘরে ফেরা ⸻  Apurban Ray  Apurba Ray
আপন-পর ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
হুব্বে রাসুল (সাঃ) ⸻  মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী  মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী
মাংসাশী শহর  ⸻  Kazi Zuberi Mostak  Kazi Zuberi Mostak
আর কত কাঁদলে ⸻  HarunKobi  হারুনুর রশীদ
আমার গানের সুর  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
বিধ্বস্ত প্রাসাদ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

কবিতা

বেনামি সুর

তোমার পৃথিবীটা রঙিন হোক
আনন্দময় হোক তোমার প্রতিটা সময়...
আমি না-হয় আধাঁর ঘরে মৃত্যুতে সাজাই বাসর।

তোমাকে ছেড়ে যাইনি,ছেড়ে যাইনি এ পহর 
ছেড়ে দিয়েছি আত্মাটাকে নিজেকে দিয়েছি কবর
নিয়তিকে সালাম ঠুকেও পাইনি তাঁর একটুও কদর।

জানি আমার এই চোখে পড়বে না চোখ 
তোমার চোখের সমুখে"
জানি আমার এই চলার পথে দেখবে না আর 
তোমার চলার স্ব স্পর্শে।  

আমি নিজেকে আজ গুটিয়ে নিয়েছি  
তোমার থেকে বহুদূরে" 
আমি এসেছি সরে আজ মোহ নামক 
মিথ্যে মায়ার ঘর ছেড়ে!  

বেনামীসুর......
#SE

Nov 23, 2022
362
0
0
0
Apurban Ray

Apurba Ray

Star Point: 4.44 of 5.00

কবিতা

অপচেষ্টা

বার বার প্রেমে পড়েছি

বার বার আঘাত পেয়েছি 

আমি আমার বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি,

বার বার বলেছি এই প্রেম প্রেম নয় 

শুধু শরীর ভাবনা

এক শরীরের লোভে আর এক শরীরের নদীর মত আনাগোনা

শেষে এক চর বুক নিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে বেচেঁ থাকা।

এমন জীবনের বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি

আমি আমার বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি।

    বাল্মীক রায় 

 

 

Nov 15, 2022
801
0
0
0
Apurban Ray

Apurba Ray

Star Point: 4.44 of 5.00

কবিতা

অদেখা ভুবন

সিঁড়ি ভেঙে উপরে উঠি 

অনেক উপরে 

জীবনের সব সুখ অনুভব করতে চাই,

সব কিছু হিসাব মিলিয়ে একটা সবুজ আলোর সুখ।

 

 

Nov 15, 2022
810
0
0
0
কবিতা-Poem
ঘরে ফেরা ⸻  Apurban Ray  Apurba Ray
আপন-পর ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
হুব্বে রাসুল (সাঃ) ⸻  মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী  মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী
মাংসাশী শহর  ⸻  Kazi Zuberi Mostak  Kazi Zuberi Mostak
আর কত কাঁদলে ⸻  HarunKobi  হারুনুর রশীদ
আমার গানের সুর  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
বিধ্বস্ত প্রাসাদ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

কবিতা

বেনামি সুর

তোমার পৃথিবীটা রঙিন হোক
আনন্দময় হোক তোমার প্রতিটা সময়...
আমি না-হয় আধাঁর ঘরে মৃত্যুতে সাজাই বাসর।

তোমাকে ছেড়ে যাইনি,ছেড়ে যাইনি এ পহর 
ছেড়ে দিয়েছি আত্মাটাকে নিজেকে দিয়েছি কবর
নিয়তিকে সালাম ঠুকেও পাইনি তাঁর একটুও কদর।

জানি আমার এই চোখে পড়বে না চোখ 
তোমার চোখের সমুখে"
জানি আমার এই চলার পথে দেখবে না আর 
তোমার চলার স্ব স্পর্শে।  

আমি নিজেকে আজ গুটিয়ে নিয়েছি  
তোমার থেকে বহুদূরে" 
আমি এসেছি সরে আজ মোহ নামক 
মিথ্যে মায়ার ঘর ছেড়ে!  

বেনামীসুর......
#SE

Nov 23, 22
362
0
0
0
Apurban Ray

Apurba Ray

Star Point: 4.44 of 5.00

কবিতা

অপচেষ্টা

বার বার প্রেমে পড়েছি

বার বার আঘাত পেয়েছি 

আমি আমার বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি,

বার বার বলেছি এই প্রেম প্রেম নয় 

শুধু শরীর ভাবনা

এক শরীরের লোভে আর এক শরীরের নদীর মত আনাগোনা

শেষে এক চর বুক নিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে বেচেঁ থাকা।

এমন জীবনের বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি

আমি আমার বিরুদ্ধে অনেক বার রুখে দাড়িয়েছি।

    বাল্মীক রায় 

 

 

Nov 15, 22
801
0
0
0
Apurban Ray

Apurba Ray

Star Point: 4.44 of 5.00

কবিতা

অদেখা ভুবন

সিঁড়ি ভেঙে উপরে উঠি 

অনেক উপরে 

জীবনের সব সুখ অনুভব করতে চাই,

সব কিছু হিসাব মিলিয়ে একটা সবুজ আলোর সুখ।

 

 

Nov 15, 22
810
0
0
0
Apurban Ray

Apurba Ray

Star Point: 4.44 of 5.00

কবিতা

ঘরে ফেরা

যন্ত্রনা অনুভব করি

পোড়া কাঠ ,শ্মশানের আগুন ,গঙ্গার জল আমার চারপাশে খেলা করে

এ পথ চলার এবার টানতে হবে দাড়ি

সবকিছু ফেলে এবার যেতে হবে বাড়ি।

 

 

Nov 15, 22
792
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

কবিতা

আপন-পর

ছিলাম বসে তাঁহার আশে
বাঁধব দুজন ঘর,
ধ্যান ভাঙিলে দেখি চেয়ে
সে-যে হলো পর!

নিরজনে নয়ন জলে
ভাসাই সারা গাল,
ওরে পাষাণ নিঠুর বন্ধু
কেন্ করলি-এ হাল?

সময় মোরে বলে হেঁকে
বেকুব ওরে সর?
তোর মানসী নিলো বেছে
মনের মত বর!

তুই কেবলি আশায় ছিলি
বসে নদীর তীর!
দেখ-তাকিয়ে নিয়েছে ঠাঁই
টিকলি পরে শির।

বলি তারে বিনয়-স্বরে
ওগো স্বাক্ষী কাল,
দোয়া করি তাহার তরী
চলুক তোলে পাল।

বলো তুমি চুপিসারে
পেলে দেখা তাঁর,
এই নরাধম না পেয়ে তায়
জনম করবে পার।
রচনা ০৭-১১-২০২২ খ্রিঃ ময়মনসিংহ (সংরক্ষিত)

Nov 10, 22
1348
0
0
0
মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী

মোঃ আব্দুর রউফ ক্ষিদ্রপেরী

Star Point: 3.57 of 5.00

কবিতা

হুব্বে রাসুল (সাঃ)

কোরান মেরাজ মোজেযা হাবীব শানেতে দলিল

প্রেমের ফরকে ইবরাহিমকে আল্লাহ খলিল

অটল ঈমানে দ্বীনের উপর কঠোর যাঁহারা,

হুব্বে রাসুল খোদার দোস্ত সাক্ষী তাঁহারা

সাহাবী তাবেঈ সাদিক শোহাদা কামিল মোমিনে,

তাঁদের সঙ্গী আছেন বহুত জগত যামিনে

সাধন শোধন প্রেমের বাঁধন হৃদয় ভজনে,

কঠোর দোজখে বাঁচতে আদেশ নিজও স্বজনে

খালেছ তাওবা পাপকে মেশায় মুক্ত আপত,

মরদে মোমিন নবীর প্রেমিক খোদার শপথ

নবির মোজেযা দেখিলে খাদিজা খোদার খলকে,

সুসার সপেঁন বিবাহ বাসরে নূরের ঝলকে

প্রেমের জীবনে নিবাস গড়েন তাঁদের শয়নে

উজ্বালা আবাস সতত সাবাস শান্তি নয়নে

আবু বক্কর (রাঃ) আওলা সদূঢ় ঈমান আনিল

সহন শীলনে জ্যৈষ্ঠ খলিফা জগত জানিল

মদিনা সঙ্গী নবির কদমে জীবন নাশেতে

সমাধী জুটল নসিবে তাহাঁর রওজা পাশেতে

হৃদয় নিংড়ে কালেমা পড়েন কঠোর ওমর

আমিরে মোমিন ফারুকে আজম ঈলাতে অমর

নাঙ্গা অস্ত্রে কল্লা নিধন হকের আলোকে

আপীল বিহীন বিচার শাসন দৃষ্টি পলকে

আরব জাহানে ওসমান গনি বাঁধিয়ে কোরান

কাগজ লিপিতে প্রচার করেন জগত প্রমান

জিন্নুরাইন লকব তাহাঁর প্রেমের স্বরুপ

সাহাবী জামাই আলোর জীবন খলিফা এরুপ

নবির প্রেমেই জীবন যাপন বিশাল আশায়

রসুল রাজিতে ফাতেমা কবুল বাবার বাসায়

বীর সে যুবক শক্তি সাহসে আলি-ই শাহানে

ধনেতে দুঃস্থ জ্ঞানের দরজা জামাই জাহানে

নানার প্রেমেই ঈমাম হোসেন হকের জেবনে

এজিদ- সীমার ধ্বংস করল রক্ত সেবনে

ফোরাত সলিল ঘিরল জালেম দ্বীনের কারনে,

আলী আজগর শহীদ হলেন তিসার তাড়নে

এজিদ অরেশ লুটায় ঈমান সুসার পরশে,

ফেরকা ফেৎনা সৃষ্টি সংঘ যুবক সরশে

নবির প্রেমেই বদরী সাহাবী জীবন বাজিতে

শহীদ বরণে অভয় তাঁদের খোদার রাজিতে

প্রথম যুদ্ধ বদর যমিনে শক্তি হাঁকেতে

পুরুষ রমনী জীবন দিলেন নবীর ডাকেতে

হাবশী বেলাল নবীর আশেক আজান শুনেতে

খুঁশিতে নবীজি খেতাব দিলেন শ্রেষ্ঠ গুনেতে

আজান শুনতে মদিনা আসিয়ে শিশুরা ভীড়িত

নবির ওফাতে আজান ফুঁকাতে বেলাল পীড়িত

বনের হরিণ নবীর প্রেমের আলাশ দিয়েছে

হরিণ শাবক নবীর ঘামের মেশ্‌ক নিয়েছে

নবির ইশারা চাঁদ দ্বি-খন্ড জাহান জেনেছে,

আকাশ যমিন তারকা সুরুয সবাই মেনেছে

তাঁহার মেছাল সৃষ্টি জগতে কাহারো চলেনা

মানব দানব জ্ঞানীর জ্ঞানের ভাষায় বলেনা

মুসার যুগের ইহুদি আলেম হাদিসে দিয়েছে

আখেরী নবীর ইছমে চুমায় স্বর্গে গিয়েছে

বাদশা মুরাদ স্বপ্নে দেখেন নবীজি বলেছে

তিনটি কুকুর চরণে কামড় দিতেই চলেছে

খুঁজিয়ে তাদেক আটক করেন মিললো স্বপনে

পাগড়ি জোব্বা পরনে ইহুদি তজবি জপনে

শুরুঙ গর্তে ঢুকিয়ে দেখেন নবীজি ঘুমান

প্রেমের শ্রদ্ধা জানিয়ে বাদশা কদমে চুমান

হাছ্ছান বিন সাবিত অসুখে শয্যা শয়নে

স্বপ্নে রসুল হস্ত বুলালে সুস্থ্য অয়নে

নবির শানেই নাত- এ রাসুল লেখেন রাত্রে

স্বপ্নে পেলেন নবীর চাঁদর রইল গাত্রে

কাসিদা লেখতে একটি চরণ গেলেন ঠেকিয়ে

স্বপ্নে নবীজি শিখিয়ে দিলেন নিলেন লিখিয়ে

সাল্লু আলাইহি ওয়া আলিহি এই সে চরণে

নবির প্রেমিক যে শেখ সাদি-ই জগত স্মরণে

খালেছ মোমিন জগত জুড়িয়ে ওয়েছ করণী

নবির প্রেমিক দন্ত ভাঙ্গে উহুদ স্মরণী

পাহাড় গুহায় সেজদা সদায় নামাজ কালামে

ব্যাকুল মনেই সময় কাটান দরুদ সালামে

নবির প্রেমিক নোমান শাফেঈ মালেকী সুয়ুতী

হানাফী ফিকহ্‌ মাসলা জ্ঞানের মুক্তা মহতী

হুজ্জাতুল্লাহ ইমাম তাহাবী ইমাম রাজির

নবির প্রেমের তুলনা জগতে শহীদ গাজির

হাসান বসরী ওয়াজ মফেলে ফায়েজে ডাকেন

রাবেয়া বসরী সামনে আসেন নবীজি থাকেন

নবির প্রেমেই জালছা মিলাদ সীরাত আলোকে

হালকা জিকির ‍হৃদয়ে তাছির আশেক ঝলকে

রুহানী নবীর হাজির সেথায় প্রকাশ অনেকে

তুমুল ফায়দা ফায়েজ ছালেক বিভোর ক্ষনেকে

ইমাম বুখারী সহিহ হাদিস যাচাই করনে

হাদিস লেখার সঙ্গে সঙ্গে সালাত স্মরণে

নবির প্রেমেই সিহাস সিত্তা ইমাম সকল

রিয়াত দিরাতে হাদিস গ্রহন আসল নকল

আহলে সূন্নাহ নবীর প্রেমিক হাদিস কোরানে

সহিহ আকিদা সালাত সিয়াম কিয়াম প্রমাণে

হুব্বে রাসুল শাহ সুলতান বলখ বারনে

ফকির বেশেই সফর তাহাঁর নবীর কারনে

বলখ ছাড়িয়ে দরিয়া পথেই মৎস পরেতে

সাধক আসেন মহাস্থানের বিশাল গড়েতে

আছর নামাজ আদায় কালিন আসন গাড়েন

পরশুরামকে কালেমা পড়াতে সমূলে মারেন

সকল মানুষ কালেমা পড়েন ঈমান তরেতে

সত্য প্রকাশ বাতীল বিলীন খোদার ডঢ়েতে

নবির পথেই শাহজালালের সিলেট ভ্রমনে

যুদ্ধে হারান গৌড় গোবিন্দে মহাক্রমনে

কালেমা নিশানে সিলেট গমনে আছেন ঘুমেতে

জালালী তাহাঁর কপোত কপোতী চড়ায় ভূমেতে

মুজাদ্দিদ-ই আল্‌ফে সানির প্রেমের বাহনে

নফ্‌সে জিহাদ অশেষ কীর্তি সত্য গাহনে

শির্‌ক বিদাত মুক্ত ঘোষনা মাওলা রাজিতে

দ্বীন-ই এলাহী ধ্বংস করেন জীবন বাজিতে

গরীবে নেয়াজ মুইনুদ্দিন আসেন ভারতে

কালেমা পড়েন নব্বই লাখ লোক নিঃস্বারথে।

নবির আকাঁনো নক্‌শা মাফিক চিহ্ন আসনে

সত্য বিজয়ে নিশান উড়ায় খোদার শাসনে

রামশহরের ক্বহর উল্ল্যা তরিক বাঁধনে

কুতুবে জামান শাহ-ই কাশ্‌ফ কঠোর সাধনে

নবির প্রথায় হস্তে তাহাঁর সতত বায়াত

খোদার কালাম সূরায়ে ফাতাহ দশম আয়াত

বায়াত বিমুখ মউত যাহার জাহেলী মরণ

ছহিমুসলিম তিনশত বিশ পৃষ্ঠা স্মরণ

নীরব প্রেমেই কোরান হাদিস এলেম জানিতে

আসল আলেম হুব্বে রাসুল রব কে মানিতে

নবির প্রেমিক যেসব বনিক নিখুঁত মালেতে

শহীদ সমান তুলনা তাঁদের হাশর কালেতে

জীবন গঠন সুদের ঘুষেঁর কামাই করেনা

হৃদয় স্বচ্ছ খোদার ভরসা কাউকে ডঢ়েনা

হালাল রিযিক দরুদ প্রেমিক নবীর শানেতে

বিপদ মুক্ত একাল সেকাল বিত্ত দানেতে

বিনয়ী মোমিন শোকর জ্ঞাপনে খোদার পেয়ারা

কলবে জিকির কালেমা জারিতে নূরানী চেহারা

নবির প্রেমেই হজ্জ গমনে মদিনা সফরে

রওজা শরীফ তাহাঁর সমীপে সালাম জপরে

সালাতু সালাম আশেকি হৃদয় এহেন অধমে

একটু জায়গা দিবেন রসুল নূরের কদমে

বিচার দিবসে জামিন আপনি পাপীর কান্ডার

সতত আরজ মুক্তি সবার দয়ার ভান্ডার

Nov 10, 22
1378
0
0
0
অনু কবিতা-Anukobita
বরণীয় কবি  ⸻  Salim Hossen  Salim Hossen
বাঙালি আমি  ⸻  Salim Hossen  Salim Hossen
বই ⸻  Salim Hossen  Salim Hossen
চৈতন্যের ডাকে  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
তুমিময়  ⸻  mehedi4082  মো: মেহেদী হাসান
আত্মঘাতী মোহে ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
পাখি  ⸻  mehedi4082  মো: মেহেদী হাসান
mehedi4082

মো: মেহেদী হাসান

Star Point: 3.75 of 5.00

অনু কবিতা

নির্ঘুম রাত

কখনও রুদ্ধ শ্বাসে-

গলাটা আটকে আসে,

 

দুচোখ মেঘলা হলো-

বৃষ্টি ঝরেনি আজো,

 

বেড় হতে চায় চাপা কান্না,

বুকের নদীতে নেই বন্যা.!

 

দিন যায় রাত আসে-

আলোময় আশেপাশে 

 

নির্ঘুম দুটি চোখে-

ধুসর স্বপ্ন ভাসে।

 

আড়াল হলে নিশি জ্যোৎস্না,

তবু যেন রাত অনন্যা.!

 

Oct 28, 22
1898
2
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

অনু কবিতা

ইচ্ছে গুলো

আমার ইচ্ছে গুলো যাই ফুরিয়ে অন্ধকার আঁধারে
আমার আশা গুলো আশায় থাকে হয়'না পূরণ প্রার্থনাতে,
আমার স্বপ্ন গুলো যাই ভেঙে যায়; স্বপ্নজালে পেঁচিয়ে
আমার সুখ গুলো তাই যাই হারিয়ে তোমার অনুরাগের ধেয়ে!!

Sep 23, 22
793
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

অনু কবিতা

সদ্যমৃত

আমিও এবার রুপ নিবো
হবো সদ্যমৃত ঘ্রাণ,
গোলাপ জলে স্নান নিবো
পবিত্রতম দীপায়ন।।
বিদায় নিবো মায়া ত্যাগে
ছিন্ন করে এ বাঁধন, 
সাধ্য নেই যে ধরে রাখার
অবসানে হই কাতর।।

#সদ্যমৃত
#MHJS

Aug 31, 22
1216
0
0
0
Salim Hossen

Salim Hossen

Star Point: 4.40 of 5.00

অনু কবিতা

বরণীয় কবি

 

কবির সৃষ্টি কাব্যকথা
গল্প ছড়া গানে,
জনম জনম মানুষগণে
মন্ত্রের মতো টানে।

তত্ত্ব কথা জ্ঞানের কথা 
মিটায় মনের ক্ষুধা, 
বইয়ের পাতার কালো কথন
হয়ে সবার সুধা। 

ক্ষণকালের এই জগতে 
দেহের মৃত্যু ঘটে, 
কবি লেখক মহামুনি 
যে-ই হোক না বটে।

বিদায় হবে দেহ আত্মা 
দৃষ্টির বাইরে যাবে,
কবি লেখক লেখার গুণে
নতুন জীবন পাবে।

স্মৃতির পাতার পৃষ্ঠা জুড়ে 
নামটা জ্যান্ত রবে,
যুগে যুগে মানব মাঝে 
বরণীয় হবে।

Aug 07, 22
515
0
0
0
Salim Hossen

Salim Hossen

Star Point: 4.40 of 5.00

অনু কবিতা

বাঙালি আমি

Title 1

 

Title 2

Text 1    

বাংলা আমার জন্মভূমি 
বাংলা আমার ভাষা,
বাংলাদেশে বসত করে
বাংলাতে হয় হাসা।

এই দেশেরই আলো বাতাস 
উর্বর কোমল মাটি, 
সুখ শান্তিতে বেঁচে থাকার
বাঙালিদের ঘাটি।

বঙ্গবাসী বাঙ্গালিরা
বাংলায় স্বপ্ন দেখি,
ছন্দে ছন্দে গান কবিতা 
খাতা ভরে লেখি।

বাংলা মোরা ভালোবাসি 
মাতৃসম জানি,
একইভাবে ভিন্ন ভাষার 
মর্যাদা দেই মানি।

সকল ভাষার সম্মান করে
গর্বে বাংলা বলি,
বুক ফুলিয়ে অলিগলি 
সবখানে যে চলি।

Jul 30, 22
654
0
0
0
Salim Hossen

Salim Hossen

Star Point: 4.40 of 5.00

অনু কবিতা

বই


বই যে মোদের পরম বন্ধু 
সদাই মোদের কাছে রয়,
বইয়ের পাতার কালো সম্পদ
কভু নাহি মিথ্যা হয়।

যার অন্তরে যত্ন করে 
তুলা আছে বইয়ের জ্ঞান, 
ন্যায়ের পথে কল্যাণ কাজে
লিপ্ত থাকে তারই ধ্যান। 

সুখ আনন্দ দুঃখ কষ্টে 
বইয়ের লেখা পথ দেখায়,
জগতের সব কালো ধুয়ে 
আলোর সকল বুল শেখায়।

বিশ্বটারে নতুন রূপে 
নতুন দিকে নিয়ে যায়, 
বই পড়ে তাই জ্ঞানী হবো
আয় রে সবাই পড়ি আয়।

বইয়ের জ্ঞানে জ্ঞানী হয়ে 
সঠিক মানুষ হতে চাই, 
বইয়ের মতে এতো আপন
জগতে যে কিছু নাই।

Jul 29, 22
681
0
0
0
আধুনিক কবিতা-Modern poetry
অবচেতন  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
বসন্ত বরণ অঞ্জলি দিয়ে  ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
গোধূলি লগ্নের পাখি  ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
কিছুটা দীর্ঘশ্বাস ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
অশ্রুসিক্ত মেয়ে  ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
বজ্রকন্ঠে আলোকপাত  ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
কে গেঁথেছে  ⸻  MD RayhanKazi  MD Rayhan Kazi
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

আধুনিক কবিতা

শয্যাগারে


অর্ধ এ-যুগ সাক্ষাৎ স্বরূপ রক্তে মিশেছে রং
জ্বালা প্রমুখ পূর্ণিমাতে অবাধ্য হয়ে শুনি সংলাপ,
রাত্রি এলেই আঁধার নামে জাগে ডর অন্তরে
নিশি যাপন হয়'যে কঠোর বারবার সর্পদংশনে।।

আমি শেষ শয্যাগারে নিজেকে করেছি পণ
আমি জীবিত থেকেও মৃত শুধু করি আলিঙ্গন, 
স্বপনছায়া নীড়ে বহুবিধ কামিয়েছি বদনাম 
অবশেষ স্বরূপ অন্বেষণে বেছে নিয়েছি মরণ।।

মরণ খেলাই রোজই চলছে লড়াই অবিরত 
মরণ নিয়ে উল্লাসিনী হাসছে স্বয়ংদীপ্ত বীণায়ক,
আমি ব্যাকুল হয়ে অকুলন হার'টা জেনে রই
জয়ের মুখ তাঁকেই মানায় রণকৌশল সাহারায়।। 

আকাশে উড়ি চান্দ্রমাসে হাওয়ায় ভাসে শরীর
মহাকাশের মেঘালয়ে তন্দ্রা রাজ্যে হই অশরীরির, 
আসন্নবর্তী অমরত্বে খোলস ছেড়ে বাঁচি অনিল 
প্রতিজ্ঞাবদ্ধ দিয়েছি কথা সাথে রবো থাকুক সরণ।।

Sep 27, 22
746
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

আধুনিক কবিতা

রঙ্গরুপ

আমি বাঁধতে পারি সুর ধরতে পারি গান
মেঘের সাথে মিশে গিয়ে বৃষ্টিতে হই স্নান,
হাসনাহেনার গন্ধ শুঁকে বুঝতে পারি ফুল
কি করেছি এই জীবনে পুরোটাই তব ভুল।

কথার কথা বলবো ভেবে জটলা বাঁধি ধাঁধায়
অল্প কথার ফুলঝুরি'টা হয়ে যাই তিলে- তাল,
তীক্ষ্ণতা আজ খাচ্ছে কুড়ে সস্তা পোড়া ব্যথায়
দীপ্ত কিরণ চক্ষু দুটোই বিষণ্ণতার নেশা ছড়ায়।

আহবানে আজ নতুন আলো নিয়নবাতি জ্বেলে 
দুঃখ গুলো দিই উড়িয়ে অভিযোগ পাতা ছিড়ে, 
যাই ভুলে যা-ই অতীত গুলো কর'টা রেখে বাকী
নিস্তব্ধতা যে থেমে গেছে আমিও রঙ্গ রুপে মাতি।

#রঙ্গরুপ
#MHJS

Sep 10, 22
842
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

আধুনিক কবিতা

আমি এসেছি জানতে

আমি এক নতুন মানুষ নতুন এই শহরে,
আমি এসেছি জানতে প্রথাসিদ্ধ অশান্ত এই নগরে।।

ভাই হয়ে ভাইয়ের গলায় ছুরি বসাও কেমনে!!
তোমরা যারা মানুষ আছো হত্যায় মাতন উৎসবে,

মায়ের গর্ভে জম্ম তোমার মাকে করছো ভোগ, 
মা জাতিকেই ধর্ষণ নামক কালি দিচ্ছ এতো লোভ?

মাটির তৈরি মানব তুমি দাপট তোমার এতো,
ভাবো মন তোমার মরতে হবে কারসাজিতে আর কত!

Aug 15, 22
522
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

আধুনিক কবিতা

অবচেতন

অবচেতন 
মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ 
তারিখঃ ২৫/০৫/২২
-
আমি সেই ক্ষয়ে যাওয়া পাথর 
যা ক্ষয়ে ক্ষয়ে নির্বিঘ্নে হারিয়ে যাচ্ছি 
হয়তো পৌর ছায়াও শেষ হবে একদিন। 

ক্ষণিকের বাহাদুরিতে মেতে উঠেছি অগ্নিতে
যারা এসেছে, যারা এখনো আছে বা আসবে!
তাদের জন্য ঠিক এই রাস্তাটাই রেখে দিলাম
ওরাও মাতবে মরণ নিয়ে খেলবে এবং হারবে।।

আমি সেই পাহাড়! অনেক উঁচু জুড়ে আছি
আমিও বিলুপ্ত- যা আধার নৈঋতে অবচেতন। 
আমিও শেষ হবো, বিলীন হবো নৈরাজ্যে!

"জোর যার মুলুক তার" এটা কোন আইন?
কতটুকু জানি,কতটুকই বা মানি! এরা কারা!
গায়ের জোরে আজ শক্তিশালী, দেখাই বর্বরতা 
মানব হয়ে- মানব খুন' পালিয়ে বেচে থাকা?

May 25, 22
1354
0
0
0
MD RayhanKazi

MD Rayhan Kazi

Star Point: 3.98 of 5.00

আধুনিক কবিতা

বসন্ত বরণ অঞ্জলি দিয়ে

বসন্ত বরণ অঞ্জলি দিয়ে 
মোঃ রায়হান কাজী 
-------------------------------------
বসন্তের আগমনে কিঞ্চিত ইচ্ছে জাগে প্রাণে,
তোমায় নিয়ে হাজারো স্বপ্ন আঁকি বেকুল হৃদয়ে।
ফাগুনের আগমনে তোমায় নিয়ে রাস্তার মোড়ে, 
কিছু ফুল কিনে গুঁজে দিতে চাই চুলের খোঁপাতে।

কোকিল পাখি ডাকছে দেখ কুহু কুহু মিষ্টি সুরে,
ফাগুন এসেছে দেখ হলদে গাধা ফুলের ভিড়ে।
কৃষ্ণচূড়ায় রাজপথ সেজেছ রুক্ষতা কাটে ধীরে ধীরে,
এ-তো সব নতুনের ভিড়ো তোমাকেই রাখি যত্ন করে।

ভালোবাসার এই উৎসবে হলুদের সমারোহে আঁচে,
বাসন্তীর রং পরিস্ফুট হয় যেন শাড়ীর আঁচলে।
আমি নব সংগীতের দরজায় কড়া নাড়তে চাই,
হলদে নীল পাঞ্জাবি পড়ে রিকশায় করে তোমার সাথে পথ চলাতে।

বৃক্ষ সাঁজে নতুন পল্ললে সজীবতা জাগে প্রাণে,
তোমার কোপালে চুম্বন এঁটে দিতে চাই সংগোপনে।
প্রকৃতির রঙিন প্রচ্ছেদে কবির কবিতার অমর ছন্দে,
বসন্তকে বরণ করতে চাই তুমি আমি মিলে ফুলের অঞ্জলি ছড়িয়ে।

Feb 14, 22
1674
0
0
0
MD RayhanKazi

MD Rayhan Kazi

Star Point: 3.98 of 5.00

আধুনিক কবিতা

গোধূলি লগ্নের পাখি

গোধূলি লগ্নের পাখি
মোঃ রায়হান কাজী 
--------------------
গোধূলি লগ্নের পাখি ফিরে আসে নীড়ে, 
ধানে ভরা তরী খানি ঘাটে এসে ভিড়ে।
কৃষাণীরা ছুটে আসে নদীর ঘাটে,
ফসলের ঘ্রাণে অতিথিদের যে আহ্বান করে।
চুপ কেন আছো সখি এই অবেলাতে, 
নাকি বরণ করবে না আমাদিগকে পুষ্প কুঞ্জ দিয়ে।

নাইবা করলে বরণ গোধূলিলগ্নে 
তবে জেনে রাখ প্রিয়,
হারিয়ে খুঁজবে আমায় ধূসর নীড়ে।
আমার হৃদয় মাঝে যার স্থান, 
সে হারিয়ে যাবে না আর।
তাহলে কোথায় সঞ্চিত রাখবে
বলো না কেন আমায়?

কেন হৃদয়ের গহীন কোণে
তোমায় বলতে হবে কী বার বার?
নাই-বা যদি বললে তাহলে কিভাবে বুজবো শুনি?
সব কথা বলে দিতে হয় না, 
কিছু কথা হৃদয় দিয়ে পড়ে নিতে হয় বুঝলা।
হয়তোবা তবে প্রকাশ করার মাঝেও
কিছুটা স্বার্থকতা লুকিয়ে থাকে।
যা না বললে মনের দূরত্ব হাজার গুণ বাড়ে।

Feb 08, 22
779
0
0
0
গদ্য কবিতা-Prose poetry
বিচ্ছিন্নতার রাজনীতি ⸻  Nikhil Ranjan Sen  Nikhil Ranjan Sen
মহাশূন্যের রূপ দর্শন ⸻  মৃণাল কান্তি রায়  মৃণাল কান্তি রায়
পরম আশ্রয় ⸻  Nikhil Ranjan Sen  Nikhil Ranjan Sen
বিপ্লবের অশনিসংকেত ⸻  Nikhil Ranjan Sen  Nikhil Ranjan Sen
জ্ঞানী // বদরুদ্দোজা শেখু ⸻  Badaruddoza Shekhu  Badaruddoza Shekhu
জুম্মা মসজিদ // বদরুদ্দোজা শেখু ⸻  Badaruddoza Shekhu  Badaruddoza Shekhu
সিরদি সাঁই বাবা // বদরুদ্দোজা শেখু ⸻  Badaruddoza Shekhu  Badaruddoza Shekhu
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

গদ্য কবিতা

আপন সুরে বাঁধি ঘর


১১'ই- অক্টোবর দিনটা শুভ বিবাহবন্ধনে ছিলো আবদ্ধ, 
হানিফ-ইভা'র আজ একবছর পূর্তি বিবাহবার্ষিকী সে ক্ষণ।।

এইতো সেদিন বিয়ের লগ্নে কনের সাঁজে সেঁজেছিল "ইভা-
হানিফ" ছিলো যে বরের সাজে খুবই মধুর ছিলো দিনটা।

দেখতে দেখতে আজ কেটে গেল! পুরো একটি বছর,
খুশিতে মেতেছিলো চার-দিকে হৈমন্তিক এক আলোড়ন। 

বিয়ে হলো আজ বছর-খানেক আছে রঙিন সুতোই বেঁধে-
বিধাতার কাছে চেয়েছিলো সে পরকালও যে চাই পাশে!

তুমি আমার আমি তোমার চলো আপন সুরে বাঁধি ঘর,
দু-জন মিলে আজ কাটাতে চাই বাকী এই সারাটা জীবন।।
                               'গান-
"তুমি এসেছো আলো করে রাঙাতে এই জীবন-
তোমাকে পেয়ে স্বপ্ন গুলো সজ্জিত হলো এ ভুবন"

উৎসর্গঃ হানিফ"ইভা।

Oct 10, 22
736
0
0
0
Salim Hossen

Salim Hossen

Star Point: 4.40 of 5.00

গদ্য কবিতা

স্বপ্ন-শঙ্কার বৈশাখ

 

বোশেখ মাসের মধ্যবর্তী কাল
সোনালী ধানে বোঝাই বিস্তীর্ণ মাঠ। 
খাঁ খাঁ রোদ্দুর যেনো অগ্নি ছড়াচ্ছে, 
একটু বিশ্রামের জায়গা খুঁজতে খুঁজতে 
হাঁপিয়ে উঠছে পতঙ্গভুক পাখির ঝাঁক। 
সেই খুশিতে নীলাম্বরী আকাশ ঊর্ধ্বে উঠে গেছে। 

ঝলসানো রোদে রুটি ছেঁকা হয়েও
ধান কাটায় মত্ত কৃষক কুল। 
আকাশে মেঘ নেই বৃষ্টির বালাই নেই
তবুও ভিজে একাকার হয়ে কর্মব্যস্ত ওরা।
স্বপ্নের ধান ঘরে উঠবে, বোঝাই হবে গোলা
সেই খুশিতে ক্লান্তি যেনো ক্লান্তি নয়
কাজ করেই চলছে ওরা।
আশঙ্কাও প্রাণপণ মরিয়া করে তুলেছে 
ধান মাড়াই এর কাজে।

ক্ষ্যাপা বৈশাখ কখন যে রূপ বদলায় 
তার কোনো ইয়ত্তা নেই। 
নীল আকাশ মুহূর্তেই মেঘময় হয়ে 
ধারণ করতে পারে অসুরের রূপ, 
চালাতে পারে তাণ্ডব লীলা,
লণ্ডভণ্ড করে দিতে সকল স্বপ্ন।

Jul 13, 22
697
0
0
0
Salim Hossen

Salim Hossen

Star Point: 4.40 of 5.00

গদ্য কবিতা

স্বপ্ন-শঙ্কার বৈশাখ

 

বোশেখ মাসের মধ্যবর্তী কাল
সোনালী ধানে বোঝাই বিস্তীর্ণ মাঠ। 
খাঁ খাঁ রোদ্দুর যেনো অগ্নি ছড়াচ্ছে, 
একটু বিশ্রামের জায়গা খুঁজতে খুঁজতে 
হাঁপিয়ে উঠছে পতঙ্গভুক পাখির ঝাঁক। 
সেই খুশিতে নীলাম্বরী আকাশ ঊর্ধ্বে উঠে গেছে। 

ঝলসানো রোদে রুটি ছেঁকা হয়েও
ধান কাটায় মত্ত কৃষক কুল। 
আকাশে মেঘ নেই বৃষ্টির বালাই নেই
তবুও ভিজে একাকার হয়ে কর্মব্যস্ত ওরা।
স্বপ্নের ধান ঘরে উঠবে, বোঝাই হবে গোলা
সেই খুশিতে ক্লান্তি যেনো ক্লান্তি নয়
কাজ করেই চলছে ওরা।
আশঙ্কাও প্রাণপণ মরিয়া করে তুলেছে 
ধান মাড়াই এর কাজে।

ক্ষ্যাপা বৈশাখ কখন যে রূপ বদলায় 
তার কোনো ইয়ত্তা নেই। 
নীল আকাশ মুহূর্তেই মেঘময় হয়ে 
ধারণ করতে পারে অসুরের রূপ, 
চালাতে পারে তাণ্ডব লীলা,
লণ্ডভণ্ড করে দিতে সকল স্বপ্ন।

Jul 13, 22
648
0
0
0
Nikhil Ranjan Sen

Nikhil Ranjan Sen

Star Point: 4.07 of 5.00

গদ্য কবিতা

বিচ্ছিন্নতার রাজনীতি

গদ্যকবিতা : ১৯০৯২০২১
বিচ্ছিন্নতার রাজনীতি
নিখিলরঞ্জন সেন
============

ভাগের মায়ের কপালে গঙ্গা জোটনি!
রূপসি মায়ের গলায় দড়ি
দুপাশে টানাটানি আর কানাকানি!

এখানেই শেষ নয়
গঙ্গার জল গড়িয়ে চলেছে নিরন্তর!
মায়ের কপালে এই ভাগটুকুও হয়ে যায় অনিশ্চিত 
ভাগের পরেও আরো ভাগ
খণ্ড খণ্ড করে দিয়ে চূর্ণ করতে চায় বুঝি!

মায়ের দুচোখে পূর্বেই ঝরেছিল অশ্রু সেইদিন
আগামীর কথা ভেবে আজ যেন কান্না-বাঁধভাঙা
মানে না কোনো বাধা
অশ্রুধারা শতধারে বয়ে যায়
জননী তবু নিরুপায়!
বেয়াড়া রাজনেতাদের ফায়দার লোভ
সবাই চায় নিজ নিজ ভাগ বুঝে নিতে
দুর্ভাগিনী মায়ের শেষ সম্বলটুকু
বুঝি বা অশ্রুধারায় ভেসে যায়
শোকসাগরে গিয়ে মেশে
করে দেয় উথালপাথাল!
অশান্ত সাগরের বুকে কালো ধোঁয়া
অকালবৈশাখির তাণ্ডব
কান্নার হাহাকারে পূর্ণ হয় আকাশ-বাতাস!

ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন দৃশ্যপটের আড়ালে দগদগে ঘা
শরীরে বিষাক্ত ক্ষতের দপদপানি
সেরে ওঠা কঠিন ব্যাপার!

গঙ্গার বুকে অশান্ত বন্যার ভাঙন
রক্তের স্রোতে মিশে যায়!

দিকে দিকে জাগে শুধু অসহায় মানুষের হাহাকার
ঢাকা পড়ে যায় শিয়ল-কুকুরের চিৎকারে!

Copyright : Nikhil Ranjan Sen

Sep 19, 21
822
0
0
0
মৃণাল কান্তি রায়

মৃণাল কান্তি রায়

Star Point: 4.26 of 5.00

গদ্য কবিতা

মহাশূন্যের রূপ দর্শন

দেখো ওই সন্ধ্যার আকাশ ধরিত্রীতে মৃন্দুমন্দ বাতাস যা হলো রাতের পূর্বাভাস,
পুব আকাশে দেখো সমুজ্জ্বল নক্ষত্র শেখো ওই হলো শুক্রগ্রহের প্রকাশ!
ওই যে মহাশূন্য চোখ ধাঁধানো রূপে গণ্য যেনো এক আলোর মেলা,
কোটিতে কোটিতে যার কিরণের ঝিলিক বারে বার গোলক বিশ্বের খেলা!
যেনো এ জ্যোতির আভরণ চোখ ঝলসানো কারণ
সবার মনকে করে হরণ,
ছাদেতে চেয়ার আসন সৌন্দর্যের কতো কি ধারণ না করে কেউতো বারণ।
এ স্রষ্টার মোহনীয় দান সকলের হৃদয় ছোঁয়ার প্রাণ সৌন্দর্যের বিজলী আভায়,
জোনাক- তিমির পক্ষ জাহির তবুও রূপ কভু না গুছায়!
মাসেতে পনেরো দিন চিলতে থেকে পূর্ণতায় লিন পৌর্ণমাসী যে চাঁদ,
আলোর বিকিরণে সাহিত্য সঞ্চয়নে লেখার কতো কি আছে সাধ!
যে যার মতো দেখে ঠিক তেমনই লেখে মহাবিশ্বের সুসংবাদ,
নাই যার কোন কিনারা কি সুন্দর বিমুগ্ধ ফোয়ারা জ্যোতির এ আবাদ।
নাই বদলের ক্ষমতা যার যার অবস্থান পাতা নড়ানো চড়ানো যাঁর হাতে,
কৃত্রিম স্যাটেলাইট বিজ্ঞান গবেষণার আইট চমকগুলো ধারণ সাথে!
যার রূপ অচিন্ত্য মানমত গণ্য চোখ রাখো মহাশূন্য পরে,
সন্ধ্যার শ্রীযুক্ত আকাশ তাঁরার মেলার সকাশ বর্ণিল হৃদ মন্দিরে!
আলোকের এই জ্যোতি মানব সভ্যতার প্রীতি ঘুরে এলাম জ্যোতির্ময় নীড়ে,
প্রীত বসে বসিলাম কথা কিছু বলিলাম মর্ত্যের এ মানবের তীরে!
যা কিছু দেখিলাম যা কিছু লেখিলাম পাঠক! দিলাম সবার ঘরে,
বিংশের এ তরু বৃক্ষ না নেয় কভু কারো পক্ষ লেখা বিষয় রেখো যতন করে!
আসার ছিল প্রস্ততি যাবার পরে ধরিত্রী রাখিবে যাঁর প্রীতিডোরে,
বিদায়ের ক্ষণ মুহূর্ত না থাকিবে কোন শর্ত মহাশূন্য দেখিবো শেষ নীড়ে!

Sep 11, 21
491
0
0
0
Nikhil Ranjan Sen

Nikhil Ranjan Sen

Star Point: 4.07 of 5.00

গদ্য কবিতা

পরম আশ্রয়

গদ্যকবিতা : ০৭০৯২০২১
পরম আশ্রয়
নিখিলরঞ্জন সেন
============

হলদে চোখের চাউনি
সামনে বিষণ্ণতাময় বিবর্ণ বিকেল
এরচেয়ে বুঝি ব্যস্ততাময় দিবসই ছিল ভালো
যদিও ছিল তা জ্বালাযন্ত্রণাপূর্ণ
তবুও তো ছিল বৈচিত্রে পূর্ণ বর্ণময়!

সহ্য হয় না আর
এর চেয়ে অন্ধ রাত্রিও বুঝি ভালো
তাহলে অন্তত ঘুমিয়ে পড়তে পারি!
তলিয়ে যেতে চাই
অন্ধকার সমুদ্রের অতল গভীরে
স্বপ্নের মাঝে ফের 
খুঁজে পেতে চাই আনন্দের সন্ধান!

পথ চলি ছায়াপথ ধরে
স্মৃতি যত বারে বারে উঁকি মারে
আলো-আঁধারির আবছায়ায়।

আমার পাশদিয়ে ছুটে চলে ধূমকেতুর রকেট
নক্ষত্রেরা দূরে জাগে মিটমিট করে
কৃষ্ণগহ্বরেরা মাঝে মাঝে উঁকি মারে
বুভুক্ষু ক্ষুধায় বিবরের বিদারণে!

চলি উষ্ণতার খোঁজে
ফিরে যেতে চাই না 
ওই শীতল জীবনের বিষণ্ণতায়
তোমাকে খুঁজি আমি 
স্মৃতিময় অতীতের বাহুবন্ধনে!

দেখতে পাই না কিছু ধোঁয়াময় হতাশার মাঝে
দমবন্ধ-অবস্থায় ঢলে পড়ি ধীরে ধীরে
পরম শান্তিময় জননীর কোলে!

Copyright : Nikhil Ranjan Sen

Sep 07, 21
547
0
0
0
গল্প-Story
নীরব ভালোবাস-৩ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
নীরব ভালোবাসা-২ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
নীরব ভালোবাসা-১ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
বিশ্বাসের প্রাচীর-৮ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
বিশ্বাসের প্রাচীর-৭ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
বিশ্বাসের প্রাচীর-৫ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
বিশ্বাসের প্রাচীর-৪ ⸻  Majharul Islam  Majharul Islam
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাসা-৬

বধু'র সাজে এ বাড়ি মাঝে, আনন্দেই কাটে দিন পায়েলের। কেমন করেই যেন গেলো চলে তিনটি বছর। ধীর পায়ে আগমন সম্মুখে তার, ডিগ্রী ফাইনাল পরীক্ষা। শ্বশুর শাশুড়ি ও স্বামী আসিফ সব-সময় পায়েলকে সব বিষয়ে সাপোর্ট দিয়ে যায় এই বলে, তুমি কাজকর্ম করবে না কখনো? পরীক্ষার প্রস্ততির জন্য সময় করে নাও। পায়েলের মনে খুশির বান বয়ে যায় নীরবে, স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি'র অকৃত্তিম ভালোবাসায়। সে এই নীরব স্নেহ আদর ও ভালোবাসায় সিক্ত হয়। আর মনে মনে আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশে বলে তুমি মহান। আলহামদুলিল্লাহ, তুমি এমন সুন্দর একটি পরিবারের নির্মল পরিবেশে আমাকে পাঠালে! হে প্রতিপালক, আমি তোমার কাছে সাহায্য চাই বাকি জীবন যেন তাঁদের মন জয় করে চলতে পারি। এরই মাঝে একদিন পায়েলের বমি বমি লাগছে! মাথাটা কেমন যেন ঘুরছে! পায়েলের বমি করা দেখে শাশুড়ী আমেনা বেগম দ্রুত কাছে এসে জড়িয়ে ধরে বলে ভয় নেই মা? এমনটা সব মেয়েদেরই হয়। এটা শুভ লক্ষণ-রে মা। আলহামদুলিল্লাহ মনে হয় আমরা দাদা-দাদী হইয়াম। হে আল্লাহ তুমি আমার মনের বাসনা পূরণ করেছো। তুমি ছহী-ছালামতে রেখো আমার বৌ-মাকে। খবরটি আজমতউল্লাহ সাহেবের কানে পৌঁছায়, তিনি বেজায় খুশি হন। স্ত্রী আমেনা বেগমকে বলেন, আজ থেকে পায়েল যেন কোন ভারী কাজ না করে? তুমি সব সময় পায়েলের প্রতি খেয়াল রাখবে? আর হ্যাঁ ওকে সময় মতো ডিম দুধ কলা মাছ মাংস সহ সব ধরণের প্রোটিন ও আমিষ জাতীয় খাবার যেন খায় সে দিকটাও তুমি খেয়াল রেখো? আর কুলছুমের মাকে বলে দাও, সে যেন যাবতীয় কাজ-কর্ম করে যায়? বৌমার প্রতি বাড়তি নজর রেখো সর্বদা। খাওয়া-দাওয়া যেন ঠিক মতোন করে। পায়েল রাতে খবরটি প্রিয় স্বামী আসিফকে জানায়। আসিফ অভাবনীয় সুখবরটি শুনে পায়েলকে আলিঙ্গনে জড়িয়ে ধরে, ওষ্ঠে-ভালে অগণিত কিস্ দেয়। পরদিন সকালে ময়নার কানেও খবরটি পৌঁছায়। ময়না একটু অভিমানের সুরে বলে, ভাবী তুমি এতো ভালো একটি খবর আমারে জানাইলা না! পায়েল বলে আরে বুদ্ধু তুই ছোট মানুষ তোকে এসব বলা কি সমীচীন হবে? ময়না গভীর চিন্তার ভাব করে, বলে হুম তা ঠিক। তবে আইজ থাইক্কা তোমার যা যা দরকার আমারে কইবা, এইটা আমার আব্দার? পায়েল মুচকি হেসে বলে আচ্ছা ঠিক আছে, এবার তুই স্কুলে যা। তোর স্কুলের দেরি হয়ে যাচ্ছে।
চলবে--

Oct 10, 22
1018
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাস-৫

বাড়ির আঙিনায় রোপনকৃত ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছ-গুলোর প্রতিদিন যত্ন নেয় পায়েল, তার নিজ সন্তানের মতো। গোড়ায় পানি দেয়া থেকে শুরু করে ইহার খুঁটি নষ্ট হয়ে গেলে, সব-কিছুতেই পায়েল তার নাইনে পড়ুয়া ননদ ময়নাকে নিয়ে তা ঠিকটাক করে নেয় তৎক্ষণাৎ। পায়েল ও ময়না সকাল বিকাল তাদের বৃক্ষ বাগানে হাঁটাহাঁটি করে অবসর সময় কাটায়। ময়না ও পায়েলের মধ্যে খুব ভাব জমেছে। তারা একে অপরে বয়সে বেশ তফাৎ হলেও খুবই প্রিয় ও বিশ্বস্ত বন্ধুর মতো নিত্য সঙ্গী হয়ে চলে। একদিন ময়না পায়েলের কণ্ঠ জড়িয়ে ধরে বলে, ভাবী আমি তোমাকে ছেড়ে কোত্থাও যাবোনা। তুমি আমার লক্ষ্ণী ভাবী। পায়েল হেসে দিয়ে বলে আরে পাগল-বুদ্ধু, একদিন তোর বিয়ে হবে, তুই চলে যাবি পরের ঘরে। তখন কী আর আমার কথা মনে থাকবে? ময়না বলে দেখে নিয়ো ভাবী আমি বিয়েই করবো না? পায়েল ময়নার মুখে এমন আবেগমাখা কথা শোনে হেসে দিয়ে বলে তুই কি তাহলে ফাতেমা জিন্নাহ হতে চাস? ময়না অবাক হয়ে জানতে চায়, ফাতেমা জিন্নাহ-টা আবার কে? পায়েল ময়নাকে ফাতেমা জিন্নাহ'র জীবনী সংক্ষিপ্ত শোনায়। এই ময়নার জীবনে করুণ এক ট্র্যাজেডি লুকিয়ে আছে। যা ময়নাও জানেনা। ময়নার বয়স যখন চার পাঁচ বছর, তখন ময়নার মা ক্ষয়-রোগে দীর্ঘদিন ভোগে, একদিন মারা যায়। ময়নার বাবা আরও আগেই মারা যায়। ময়নার মা সুস্থ অবস্থায় এই বাড়িতে সারা বছর'ই বিশ্বস্ততার সাথে কাজকর্ম করেছে। তাই এতিম ময়নাকে আজমতউল্লাহ দম্পতি তাঁদের বাড়িতে নিয়ে আসে। সেই থেকে ময়না এই পরিবারের একজন সদস্য। যেহেতু আজমতউল্লাহ দম্পতির কোনো কন্যা সন্তান নেই, তাই তাঁরা সিদ্ধান্ত নেয়, ময়নাকে নিজ মেয়ের মতোন আদর যত্ন করে বড় করবে। ময়নাকে লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষের মতো মানুষ করবে এই সুদৃঢ়-বাসনা তাঁদের মনে নীবিরড়-ভাবে পোষে। সেই ময়না বাড়ন্ত দেহে বড়ো হয়ে এখন ক্লাস নাইনে পড়ছে। পায়েল এতিম ময়নার জীবন কাহিনী, স্বামী আসিফের কাছ থেকে সব জেনেছে। নইলে সে বুঝতেই পারতো-না যে, ময়না এ বাড়ি মেয়ে নয়! পায়েল সবকিছু জেনে, সেইদিন থেকেই ময়নাকে ছোট বোনের মতো আরও বেশি বেশি আদর-স্নেহ করে। আর মনে মনে ভাবে ময়না-তো এতিম? আর এতিমকে অবহেলা বা অবজ্ঞা করলে আল্লাহর আরশ কেঁপে উঠবে। জগতের মালিক, মহান আল্লাহ-তায়ালা, এতিমদের পছন্দ করেন বেশি। যদিও সৃষ্ট-বিধানের নিয়মে, অনেক শিশু এতিম হতে বাধ্য হয়। তা-ছাড়া আল্লাহ হয়তো জগতের সুস্থ সবল মানুষদের পরীক্ষা নেয়ার জন্যই পাশের কাউকে এতিম বানিয়ে রাখেন? তাই হয়তো এতিমদের ফরিয়াদ দ্রুত কবুল করেন তিনি। হয়তো এতিমদের প্রতি সমাজের স্বচ্ছল বিত্তবানরা কেমন আচরণ করে তা দেখার জন্যই উন্মুখ থাকেন মহান-আল্লাহ তায়ালা। এতিমের মাথায় স্নেহের পরশে সামান্য হাত বুলালেও না-কি জান্নাত মেলে। আমাদের দ্বীনের নবী রাসূল (সাঃ) ও-তো এতিম ছিলেন। সুতরাং সেই মহা-মানবের উম্মত হয়ে এতিমকে হেলা করলে রোজ-হাসরে উনি নিশ্চয়ই আমাদের জন্য সাফায়াত চাইবেন না আল্লাহর কাছে?
চলবে--

Oct 06, 22
734
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাসা-৪

পায়েল বধুবেশে এ বাড়িতে এসেছে মাস-তিনেক হলো। সে এ বাড়িতে এসেই সব কিছুই যেন অতি আপন করে নেয়। ঘর-দোর সাজাতে ব্যস্ত সময় কাটায়। পুত্রবধু পায়েলের সুন্দর পরিপাটি কাজকর্ম দেখে, আজমতউল্লাহ ও আমেনা বেগম বেজায় খুশি হয়। পাড়া পড়শির কাছে তৃপ্তির ঢেকুরে কথা বলে। তাঁরা উভয়ে ভাবে আল্লাহর রহমতে এমন ভালো বৌ পেয়েছি। আজমতউল্লাহ একদিন পায়েলকে ডেকে বলে, মা-রে এই সংসার তোর? তুই তোর নিজের মতো করে সবকিছু গুছিয়ে নে? আমাদের যতটুকু হেল্প লাগে তা করতে কার্পণ্য করবো না আমরা। তা-ছাড়া ক'দিনই আর বাঁচবো। পায়েল বলে বাবা এভাবে বলবেন না-তো? মনে দাগ কাটে, কষ্ট হয়। আমি চাই আজীবন আপনারা আমার পাশে ছায়ার মতো বেঁচে থাকুন। পায়েল আরো বলে বাবা, আমার কিছু শখ আছে। তাই ওই শখ পূরণে আপনার নিকট একটি আব্দার ছিলো? আজমতউল্লাহ যৎ চিন্তিত হয়ে বলে, বল মা তোর কী সেই আব্দার? পায়েল বলে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি বাড়ির চারপাশটা পরিস্কার করে সেথায় কিছু ঔষধি ও ফলজ বৃক্ষ রোপন করবো। শ্বশুর আজমতউল্লাহ সহাস্যে বলেন আলহামদুলিল্লাহ, বাহ্ বেশ-তো। আমিও বৃক্ষ পাগল মানুষ। আমি তোকে সব-ধরণের হেল্প করবো-রে মা। পরদিন আজমতউল্লাহ পাড়া হতে কাজের লোক ডেকে এনে, বাড়ির চারপাশের ঝোপ-ঝাড় কেটে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করালো। পায়েল বললো বাবা বাড়ির যে অংশটুকু পরিচ্ছন্ন করা হলো, তার মাঝে আমি কিছু ঔষধি বৃক্ষ, যেমন নিম, আমলকী হরতকী বহেড়া অর্জুন ইত্যাদি, রোপন করতে চাই। ক্লাসে ও বইয়ে পড়েছি বাড়িতে নিম গাছ থাকলে অনেক রোগ-ব্যধি আসেনা। আজমতউল্লাহ পুত্রবধুর কথায় খুশি হয়ে বলে নো চিন্তা। আমি তোর সব চাহিদা মিটাবো মা। শ্বশুরের মুখে সম্মতির উচ্ছ্বসিত কথা শুনে পায়েলও খুশি হয়। দুদিন পর আজমতউল্লাহ স্থানীয় নার্সারি থেকে রিকসা-ভ্যান-ভর্তি করে, বিভিন্ন প্রজাতির ঔষধি ও ফলজ বৃক্ষের-চারা বাড়িতে নিয়ে আসে। এনে পায়েলকে বলে, নে-মা তুই কোনটা কোথায় রোপন করবি কর? পায়েল বলে বাবা কাল একজন কাজের লোক ঠিক করুন? তাঁকে দিয়ে গর্ত করিয়ে ইহাতে গোবর দিতে হবে। তারপর গাছ রোপন করবো আমরা সবাই মিলে। পরদিন একজন কাজের লোক নিয়ে জায়গায় জায়গায় গর্ত করে, পায়েল ও তার স্বামী এবং শ্বশুর শাশুড়ি ননদ ময়নাকে নিয়ে সব চারা রোপন করে  পায়েল।
চলবে--

Oct 03, 22
748
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাস-৩

আসিফের মুখে সাবলীল ভাবে কাব্য-কথন শ্রবণে পায়েল বেশ প্রীত হয়। সে মনে মনে ভাবে যাক, আজ জানতে পারলাম এ জগতে কেহ আমায় নীরবে হলেও প্রচণ্ড ভালোবাসে! অথচ সেই নীরব ভালোবাসার কথাটি, তাঁহার মন-মানসী জানেই-না! মহান রব মানব-সত্তায় প্রেম ভালোবাসা ভরে দিয়েছেন সুপ্ত ভাবে, তা প্রকাশ পেলে কার-না ভালো লাগে? আর সেটা যদি কোনো প্রতিষ্ঠিত সুপুরুষের কণ্ঠ হতে বেরোয়? পায়েল মনে মনে এও ভাবে, মনে হচ্ছে মানুষটি আসলেই ভালো মানুষ। একজন সত্যবাদী মানুষ। কারণ নিলাজে সে অকপটে সব প্রকাশ করেছে। এটা সততাও বলা চলে, আবার সাহসীও বলা চলে। পায়েলও তখন কিঞ্চিৎ কাব্যিক-স্বরে বলে, জী জনাব, আপনাকে আজ দেখে ও ওষ্ঠ ফাঁকের কথন শোনে, আমারও বেশ ভালো লেগেছে। সুতরাং না পছন্দের কিছু নেই। অতএব আপনার সনে ঘাঁটছড়া বাঁধনে জড়াতে আমার বিন্দুমাত্র দ্বিমত নেই মহাশয়। তবে ঐ-যে বললেন নিজস্ব পছন্দের কথা? সে বিষয় যৎ বলি, কালস্রোতে ভেসে জীবন থেকে আঠারো সাল পার হলেও, কেহ এতো সুন্দর-ভাবে আবেগ নিয়ে কখনো এমন প্রপোজ করেনি আমায়। তাই নিজেকে কখনো বিশ্বস্ত কারও কাছে শঁপে দেইনি। যদিও চলার পথে কুকুরের ঘেউ-ঘেউ কানে আসতো সকাল-বিকাল নিত্য। সেই অবাঞ্চিত বেসুরো কথন নীরবেই সয়ে গেছি বয়ঃসন্ধিকাল হতে। তবে মনের গহীনে একটি সুপ্ত বাসনা পোষে-ছিনু এযাবৎ কাল। আর তা হলো বিয়ের পর দেহ-মন-প্রাণ উজাড় করে ভালোবাসবো সেই কাঙ্খিত মানুষটিকে। যে মানুষটি সুখে-দুখে সর্বদা আগলে রাখবে তাঁর বুকে। শতো ঝড়-ঝঞ্চায় ছেড়ে যাবেনা কখনো। মহান আল্লাহ যেন আমাকে সে রকম একজন সৎ ও উদার মনের মানুষ দান করেন। তবে একটি ছোট্ট রিকুয়েস্ট ছিলো আপনার সমীপে? আসিফ বলে হ্যাঁ বলুন প্রিয়, কী সেই রিকুয়েস্ট? পায়েল বলে আমি বিয়ের পরও আমার লেখা-পড়াটা চালিয়ে যেতে চাই? আসিফ বলে হ্যাঁ নিশ্চয়, নিশ্চয় আপনি যদ্দুর পড়তে চান আমি ইনশাল্লাহ তদ্দুর আপনাকে পড়াবো। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের তরেই আপনার উচ্চতর শিক্ষা গ্রহন প্রয়োজন। উচ্চ শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই জনাবা। সেদিন সন্ধ্যা রাতেই ঘরোয়া পরিবেশে পায়েল ও আসিফের শুভ বিবাহ সম্পন্ন হয়।
চলবে--

Sep 27, 22
806
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাসা-২

পাত্র আসিফ তাঁর মায়ের পাশেই সোফায় বসা ছিল। সে কানে কানে ফিসফিসিয়ে কী-যেন বললো তাঁর মাকে। তাহা পায়েলের দৃষ্টি এড়ায়নি। আসিফের মা আমেনা বেগম একটু শব্দ করে জোরেই বললেন, ঠিক আছে বাবা, তোরা দুজন অন্য কামড়ায় গিয়ে একান্তে কিছু কথা বলে নে? তারপর না-হয় আমরা সিদ্ধান্ত নেই? এ কথা শোনে পায়েল বুঝতে পারে, মা-ছেলের কী কান-কথা হয়েছে। পায়েল মনে মনে কিছুটা খুশি হলো। যাক বাঁচা গেলো, লোকটার মাথায় তাহলে বুদ্ধি আছে বটে। পায়েলের দেহমনে তৃপ্তির সুবাতাস বইয়ে গেলো নিমিষেই। আসিফ ওঠে পায়েলের পিছু-পিছু যায়। এবং পাশের রুমে গিয়ে খাটের এক কোণায় বসে। পায়েলও একটু দূরে বসে। কারও মুখে কোন কথা নেই দেখে, জড়তা ভাঙলো আসিফ। সে বললো, দেখুন মিস্ পায়েল আক্তার, আমার নাম আসিফ আহমেদ। আমি গণিতে অনার্স-মাস্টার্স কমপ্লিট করে, একটি হাই-স্কুলে গণিতের টিচার হিসেবে জয়েন করেছি প্রায় এক বছর হলো। আমি মা বাবার একমাত্র সন্তান হওয়ায় তাঁহারা ঘরে পুত্রবধু আনতে পাত্রী খোঁজছেন। সৌভাগ্য-ক্রমে আমি আপনাকে প্রথম দেখি, আজ থেকে পনের বিশ দিন আগে। সম্ভবত আপনি সেদিন বান্ধবীদের সনে কলেজে যাচ্ছিলেন? সেই-দেখাতেই আপনাকে আমার ভীষণ ভালো লেগে যায়। বলতে পারেন প্রথম দেখাতেই আপনাকে প্রচণ্ড ভালোবেসে ফেলি। কিন্তু বাসনা প্রকাশের পরিবেশ ছিলোনা তখন। সেদিনের পর থেকে আপনার হাসিমাখা মায়াবী মুখ, হরিণী যুগল-চোখ, আমার হৃদয় দর্পণে সর্বদা ভাসমান। দিন নেই রাত নেই শুধু আপনাকে নিয়েই ভাবি। আপনার অবয়ব অন্তর থেকে কিছুতেই মুছতে পারিনি। স্বপ্ন বুনি অহরাত মানসপটে। আমি সেদিন আপনার নাম ঠিকানা সংগ্রহ করি পাশের এক দোকানদারের কাছ থেকে। অতঃপর বাড়ী এসে মা-কে বিস্তারিত জানাই। সে সুবাদেই আজ আপনাকে দেখতে আসা ও এই আয়োজন। আপনাকে ফের দেখার উছিলা ছিল প্রবল। এ মূহুর্তে মনের অব্যক্ত নীরব বাসনা জানাতে পেরে নিজেকে হাল্কা লাগছে। তবে আমি এও বলছি, যদি আমাকে আপনার পছন্দ হয় তবেই বিয়ে নয়-তো নয়। আর যদি আপনার পছন্দের তালিকায় অন্য কেহ থাকে? বা আমার সনে ঘাঁটছড়া বাঁধনে আপনার ঘোর আপত্তি থাকে? তাহলে নিঃসংকোচে আপনি বলতে পারেন। আপনার সকল সিদ্ধান্ত আমি মাথা পেতে মেনে নেবো। আপনার যে-কোন তিক্ত বা অম্লমধু কথন শুনতে আমি প্রস্তত আছি হে মহীয়সী নারী?
চলবে--

Sep 25, 22
775
0
0
0
Majharul Islam

Majharul Islam

Star Point: 4.04 of 5.00

গল্প

নীরব ভালোবাসা-১

স্কুলের গণ্ডি পেরিয়ে, স্থানীয় কলেজে একাদশে ভর্তি হয় পায়েল। উপজেলা সদরে অবস্থিত সেই ডিগ্রী কলেজটি, পায়েলদের বাড়ী হতে বেশি দূরে নয়। পনের-বিশ মিনিট পা বাড়ালেই কলেজে পৌঁছে যায় পায়েল। অবশ্য কলেজে যাবার কালে ময়না, রোজিনা, জরিনা, পায়েলের সঙ্গী হয়। পায়েল দেখতে বেশ সুন্দরী ও সুঠাম-দেহের অধিকারী। পায়েল একদিন কলেজ থেকে বাড়ী ফিরে এসে দেখে, তাঁদের বাড়িতে ক'জন মেহমান এসেছেন। পায়েল রান্না ঘরে গিয়ে তাঁর মাকে জিজ্ঞেস করে জানতে পারে, তাঁকে পাত্রী-হিসেবে দেখার তরেই, ছেলে মা বাবা সহ কয়েকজন এসেছেন। পায়েল মায়ের মুখে এমন মৃদু-অপ্রিয় কথা শোনে, হ্যাঁ বা না কিছুই বলেনি। পায়েলের মা পায়েলকে বলে যা-মা, গোসল করে ফ্রেশ হয়ে রেডি হয়ে নে? আর হ্যাঁ সালাম দিয়ে তাঁদের সামনে যাবি। পায়েল সুবোধ বালিকা ন্যায় গোসল করতে চলে যায়। তারপর বঙ্গের চিরায়ত নিয়মে, ও যথা সময়ে পায়েলকে পুতুলের মতোন করে সাজিয়ে, বর পক্ষের সামনে এনে হাজির করা হয়, সন্ধ্যার কিছু আগে। পায়েলকে দেখে ও আলাপ-চারিতায় ছেলে পক্ষের খুব পছন্দ হয়। তাঁদের পছন্দের কথাটি পায়েলের বাবাকে, পাত্রের বাবা আজমতউল্লাহ সাহেব তা অকপটেই জানান, এই বলে-যে, ভাই সাহেব আলহামদুলিল্লাহ আপনার মেয়ে বেশ সুন্দরী। আমরা তাঁকে পছন্দ করলাম। আজমতউল্লাহ সাহেব, সাথে এও বলেন, ভাই আপনাদের যদি কোন-রকম আপত্তি না থাকে? তাহলে আজ'ই বিয়ের কাজটা সম্পন্ন করতে আমরা রাজি আছি। পায়েলের বাবা ও মা শুকর-আলহামদুলিল্লাহ বলে সম্মতি জানায়। কারণ ছেলে শিক্ষিত দেখতেও মাশাল্লাহ রাজপুত্রের মতোন, চাকুরীও করছে, জায়গা জমিও আছে বেশ। এমন ছেলেকে হাতছাড়া করা ঠিক হবেনা এই ভেবে। পায়েল মাথা নীচু করে নীরবে নিজ আসনে বসে ভাবছে, চিনা নেই জানা নেই, এমন একটা লোকের সনে তার বাকি জীবন কাটাতে হবে! তা-ছাড়া বিয়ের বিষয়ে সে এখনো মানসিক ভাবে প্রস্তুত নয়। এই কথাটি সে তাঁর বাবা মাকে কেমনে বুঝাবে ভেবে পাচ্ছে না। তার কথা শ্রবণ করে যদি বাবা মা তাঁদের মনে কষ্ট পায়? এই ভেবে পায়েল মনের বাসনা মনেই নীরবে মাটিচাপা দেয়। সে এ বিষয়ে টু-শব্দটি করেনা। চলবে---

Sep 25, 22
726
0
0
0
ছড়া-Rhyme
কাপড় ধুচ্ছে  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
ছিদল পড়েছে মনে ⸻  Sukanta pal  Sukanta pal
মায়ের আকুতি ⸻  Sukanta pal  Sukanta pal
মিনি পুসি ⸻  Shibani Bagchi  Shibani Bagchi
মর্ম ততখানি ⸻  shivan das  শিবেন চন্দ্র দাস
কুকীর্তি  ⸻  MHJS  মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ
মেলা দেখা ⸻  Sukanta pal  Sukanta pal
Shibani Bagchi

Shibani Bagchi

Star Point: 4.04 of 5.00

ছড়া

শৈশব

দিন যায় মাস যায় বুঝি বছরও ফুরায়,
স্কুল মাঠে পথে ঘাটে আজ শৈশব কোথায়?
ওরা হারিয়েছে খেলাধুলো লাটাই ঘুড়ি,
শৈশব বন্দী ঘরে, আজ বড়ো অসহায়।
 
আদরে জমানো সেই স্মৃতি মাখা রোদ্দুর,
তারা সময়ের স্রোতে বুঝি হারিয়ে হারায়!
খুনশুঁটি আবদার সাথে হৈচৈ হুল্লোড়ও
অনুভবের ভাবে আজো আবেসে জড়ায়!
 
পায়ে পায়ে ছোটবেলা বড়ো হয়ে যায়,
স্মরণে মগজে ভরে চীর স্মৃতির পাতায়।
ফেলে আসা স্কুল, কলেজের বাউন্ডারি -
শেষে ঘরে বসা চাকরিও জানায় বিদায়!

Aug 29, 21
200
0
0
0
মৃণাল কান্তি রায়

মৃণাল কান্তি রায়

Star Point: 4.26 of 5.00

ছড়া

ঠাম্মির আর্ট

ঠাম্মি আমার রসের গোলক
আঁকে মজার মজার আর্ট,
ছেঁড়া চপ্পল ছেঁড়া শাড়ী
নিজে থেকে খুব স্মার্ট!
ঠাকুর দাদা আসে যখন
যুদ্ধ বাঁধে শয়ন মতন,
ঠাম্মি আমার খাটে ঘুমায়
ঠাকুরদা দেখো মারে কোঁথন।
নিজের থোতমায় আর্টের মাকা
কখন কারে দিবে বাঁশ,
খালি ঝগড়া খালি ফ্যাসাদ
ঠাম্মির দেখো সুখবাস।
আর্ট করা ঠাম্মির অভ্যাস
দিন-রাতের যতো কলা,
একা আঁকে একা বকে
দেয় মোরে কানমলা!
ঠাম্মির আর্ট শিখতে চাইলে
আগে খাট বানাও,
যুদ্ধ করার তাগিদ দেবে
ঠাম্মিকে চিনে বাও!
ঘাটের মরা মজার ঠাম্মি
তবুও সে রসের বড়া,
নাতি-নাতকুর দেখার লাগি
আজও না যায় যমপাড়া!
ঠাম্মির আর্টের মূল সার
কুল যেনো বাড়ে তার,
নামে নামে আর্টের শার্ট
রকমারি ভাব যার!
যুয়ান কালে আর্টের ঠ্যালায়
এক ঝাঁক যার সন্তান,
জন্ম নিয়ন্ত্রণ মানতে চায়না
বলে ওসবে পাপ সমান!

Aug 04, 21
986
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

ছড়া

মুশতাক সামি

কাপড় ধুচ্ছে মুশতাক সামি
আছে এখন বিজি,
কি জানি কোথায় যাইবো 
ঘুরতে নিবো গাড়ী।

আর যে যায় বলে বলুক
ছেলে কিন্তু ভালো,
ভাল্লাগে ওরে ভিষণ রকম
আদর নিস আরও।

নক করেছি একটু আগে
জবাব ছিলো এটা,
কি আর করার অপেক্ষা থেকে
কবিতাটুকু লিখা।।

এখনো বিজি ভাইটা আমার 
কতো কষ্ট করছে,
বিয়ের জন্য মেয়ে খোঁজার
পারমিশন চলছে!

#জ্বিহুজুর
#MHJS

Jun 12, 21
607
0
0
0
MHJS

মঞ্জুরুল হোসেন জুবায়েদ শেখ

Star Point: 4.01 of 5.00

ছড়া

কাপড় ধুচ্ছে

কাপড় ধুচ্ছে মুশতাক সামি
আছে এখন বিজি,
কি জানি কোথায় যাইবো 
ঘুরতে নিবো গাড়ী।

আর যে যায় বলে বলুক
ছেলে কিন্তু ভালো,
ভাল্লাগে ওরে ভিষণ রকম
আদর নিস আরও।

নক করেছি একটু আগে
জবাব ছিলো এটা,
কি আর করার অপেক্ষা থেকে
কবিতাটুকু লিখা।।

এখনো বিজি ভাইটা আমার 
কতো কষ্ট করছে,
বিয়ের জন্য মেয়ে খোঁজার
পারমিশন চলছে!

#জ্বিহুজুর
#MHJS

Jun 10, 21
515
0
0
0
Sukanta pal

Sukanta pal

Star Point: 4.18 of 5.00

ছড়া

ছিদল পড়েছে মনে

ছিদল পড়েছে মনে থেকে ঘরে বন্দী
এই বুঝি করোনার ছিল মনে ফন্দী।
কতদিন ইস্কুল পড়ে আছে বন্ধ
খুলবে যে কবে তার নাই নাম গন্ধ।
এরই সাথে আম্ফান ইয়াসেরা ভাঙে গাছ
নদী ছেড়ে রাস্তায় খেলে নাকি ল্যাটা মাছ।
কত ঘর গেছে ভেঙে উড়ে গেছে কত চাল
আম বট কাঁঠালের পড়ে পথে কত ডাল।
শয়ে শয়ে আসে লাশ শ্মশান আর কবরে
টিভি খুলে বসলেই ভয় লাগে খবরে।
ঘরে বসে ঠুকোমুকি থাকি নাতো চুপচাপ
এরই সাথে লেগে থাকে পিঠে পড়া ধূপধাপ।

Jun 05, 21
208
0
0
0
Sukanta pal

Sukanta pal

Star Point: 4.18 of 5.00

ছড়া

মায়ের আকুতি

হাড়মাস সব জ্বালিয়ে খেলি এমনি পোড়ামুখী
তোর জ্বালাতে জ্বলে ম,লাম ন’সতো কচি খুকি
জমছে ধূলো বই খাতাতে কোথায় ভায়োলিন
হয় মোবাইল নয় সিরিয়াল এই তো সারাদিন ।
টিউশানিতে কাড়ি কাড়ি লাগছে টাকা মাসে
সারাদিনরাত শাঁখা ঘষে তবেই টাকা আসে।
চিন্তা করে করব কি আর ভাগ্য আমার বটে
দুখে গেল দুখেই যাবে সুখ তো নাই ঘটে।
পড়া ছাড়া খড় ভেঙে তোর নাইকো কোনো কাজ
একটি দিনও বলিনি তোকে এঁটো বাসন মাজ।
দুটো হাতেই কাচাকাচি হেঁসেলে তিনবেলা
ধোয়ামাছা ঠাকুর দেওয়া কিংবা তোলামেলা।
সংসারের এই ফাইফরমাশ খাটছি দিনরাত
রক্ত যদি উঠেও মুখে পাই নিকো ফুরসাত ।
আমার কথা ছেড়েই দিলাম বাপের দিকে চেয়ে
হয় না কি তোর দয়ামায়া কেমন ধারা মেয়ে।
তোকে নিয়ে অনেক আশা কত স্বপ্ন ছবি
পড়াশোনা করে যে তুই সত্যি মানুষ হবি।

Jun 01, 21
293
0
0
0
Date and Time
Notices
Categories
অণু ভৌতিক গল্প - Molecular Horror Story (47)
অনু কবিতা - Anukobita (624)
অনু-গল্প - Anu-Golpo (31)
অনুকাব্য - Anukabbo (10)
অনুবাদ সাহিত্য - Translation Literature (0)
আধুনিক কবিতা - Modern poetry (302)
আমার ডায়েরি - My Diary (17)
ইসলামী গজল - Islamic Ghazals (7)
ইসলামী গল্প - Islamic Story (2)
উপন্যাস - Novel (191)
এসো পাশে দাঁড়াই - Let's stand by (2)
কথোপকথন - Conversation (4)
কবিতা - Poem (7926)
কাব্য চিঠি - Poetry letter (26)
কৌতুক গল্প - Story of Joke (1)
কৌতুকধর্মী কবিতা - Comedian poetry (9)
খোলা ভাবনা - Open Thinking (49)
গদ্য কবিতা - Prose poetry (290)
গবেষণামূলক সাহিত্য - Dissertation literature (7)
গল্প - Story (253)
গীতি কবিতা - Lyric Poetry (132)
গ্রন্থ আলোচনা - Book discussion (10)
চতুর্দশপদী কবিতা - Sonnet poetry (31)
ছন্দের কবিতা - Rhyme Poetry (105)
ছোটগল্প - Short Story (70)
ছোটদের গল্প - Children's Story (8)
ছড়া - Rhyme (213)
জীবনী - Biography (21)
নাটক - Drama (2)
পঞ্চতন্ত্রের গল্প - Panchatantra’s Story (0)
পদ্য কবিতা - Verse poems (148)
প্রচলিত কাহিনী - Common myths (0)
প্রবন্ধ - Essay (43)
বিরচন - Formation (1)
ব্যঙ্গাত্মক কবিতা - Satire Poetry (1)
ভৌতিক-গল্প - Horror Stories (2)
ভ্রমণ কাহিনী - Travel Story (5)
রম্যরচনা - Comics (7)
রূপকথার গল্প - Fairy tale (0)
লিমেরিক কবিতা - Limerick poems (32)
লোকোগীতি - Folklore (2)
শিশুতোষ ছড়া - Childish rhyme (4)
শ্যামাসঙ্গীতঃ - Shyama Sangeet (2)
হাইকু কবিতা - Haiku Poem (12)
Video Gallery
Visitors Statistics
Online
Members 0
Guests 2
Visitors Counter
Total 1759298
Today 51
Yesterday 578
This Week 3315
This Month 13309
Top 10 countries of this month
France 9494
United States 3789
Bangladesh 18
Ireland 6
Russia 2
SUPPORT
Copyright © 2017-2022 kobikotha.com. All rights reserved.
Power by: WanaApps
Members Faq Terms